Archive

Category Archives for "উপন্যাস"
2

বৃষ্টি নামার আগে – পর্ব ৭

  ইপ্তির যখন ঘুম এলো তখন রাত শেষ, ঘুম ভাঙলো অনেক বেলায়। মধ্যরাতের কষ্টগুলো আবেগ গুলো সাধারণত ঘুৃমভাঙার পরে হালকা হয়। ইপ্তির রাতের কথা মনে হয়ে অস্বস্তি লাগতে শুরু করলো। শাফির বিয়ে ঠিক হয়ে গেছে, এখন ইপ্তি কি পাগলামি করছে, বিষয়টা থেকে মুক্তি চাই ই চাই। কিন্তু শাফি যেন মাথার মধ্যে স্থায়ীভাবে বসে আছে। একচুল […]

বিস্তারিত
4

বৃষ্টি নামার আগে- পর্ব ৬

  সকাল সকাল ঘুম ভেঙে গেলো শাফির। আজান শুনেই ওঠে শাফি, কিন্তু ইপ্তি ফোন করেনি। ফোন করবে কি, কয়েকদিন ঘুরে ইপ্তি ঘুমিয়ে কাঁদা, অবচেতন মনও জাগাতে পারেনি৷ নামাজের পরে কিছুক্ষণ ছাদে হাঁটলো শাফি। ইপ্তি বোধহয় উঠতে পারেনি। মাঝে মাঝে শাফির সত্যিই খুব একা লাগে৷ এসব ব্যবসা, কাজ কারবার ফেলে দূরে কোথাও চলে যেতে৷ আজ খুব […]

বিস্তারিত
7

বৃষ্টি নামার আগে- পর্ব ৫

  দূর থেকে সারার মনে হলো, ওরা একটা চমৎকার সময় কাটাচ্ছে, শুধু শুধু ওদের বিরক্ত করা কি দরকার!! ভাইয়া ইপ্তিকে অন্য চোখে দেখছে, এটা কোনভাবে মা বুঝতে পেরেই আমাদের আজ রাতেই ঢাকা পাঠাতে চাইছে। কারন ভাইয়ার বিয়ের কথা হয়ে গেছে। এখন মেয়েকে সোনার চেইন দিয়ে সেই বিয়ে ভাঙা বিষয়টা এতোটাও সহজ না। অথচ ভাইয়া ইপ্তিকে…. […]

বিস্তারিত
7

বৃষ্টি নামার আগে- পর্ব ৪

  দুপুর হওয়ার আগে একপশলা বৃষ্টি হলো। শাফি বাড়ি ফিরে দেখলো ধুন্ধুমার কাণ্ড, সারা আর ইপ্তি ব্যাগ গুছিয়ে ফেলেছে। শাফি বলেছে পরশু যাবে, তারপরেও মা কাকে দিয়ে যেন টিকিট বুক করিয়েছেন। আজ রাত নয়টায় বাস। শাফি সাধারণত রাগে না, আজ খুব রাগ হচ্ছে। ওর ফিরতে দেরী হয় বলে ও সাধারণত একাই খায় টেবিলে। ইচ্ছে করছে […]

বিস্তারিত
5

বৃষ্টি নামার আগে- পর্ব ৩

  বাসায় ফিরে আসতে আসতে সন্ধ্যা হয়ে গেলো। ইপ্তির বই জোগাড় করা গেছে, ইপ্তি কয়েকবার করে ধন্যবাদ দিয়ে এসেছে ইশিতাকে। ইপ্তির ধন্যবাদের বহরে শাফির ভীষণ হাসি পেয়েছে, মেয়েটা বুঝতেই পারছে না কি মহান সাহিত্য সে পড়তে চলেছে!! আজ অষ্টমী তিথি, বড়পূজার দিন। আকাশ মেঘলা ছিলো বলে বেশ ভ্যাপসা গরম ছিলো। রাতে বৃষ্টি হবে নিশ্চিত। দূরের […]

বিস্তারিত
7

বৃষ্টি নামার আগে- পর্ব ২

  সেয়াই পিঠা বানানোর পদ্ধতিটা ইপ্তির খুব পছন্দ হলো, সে চেয়ারে বসে কতক্ষণ কল ঘোরালো, কিন্তু বিষয়টা এতোটা সহজ না। তাই একটু পরে হাল ছেড়ে উঠে খাওয়ায় মন দিলো। দুজন চালের আটা দলাই মলাই করে মথে দিচ্ছে, একজন রেডি আটা কলে ঢুকিয়ে কল ঘোরাচ্ছে। মাংসটা কেমন ঝাল ঝাল, একটা অন্যরকম ফ্লেবার আছে- সারাকে প্রশ্ন করলো […]

বিস্তারিত

বৃষ্টি নামার আগে -পর্ব ১

  সারা, তুমি এবার সিলেট ট্যুরে যাচ্ছো না? মিটিং আছে ক্যাফেটেরিয়ায়, চলো যাই? -ল্যাব থেকে বের হতে হতে ইপ্তি সারাকে জিজ্ঞেস করছিলো। না, আমি যেতে পারবো না, আমাকে বাড়িতে যেতে হবে- সারা সাধারণ ভাবে উত্তর দিলো। ওহ, আচ্ছা, আগের ট্যুরে কনভেনার তুমি ছিলে, খুব আনন্দ হয়েছিলো। সারা হেসে বললো, হ্যা, সেন্টমার্টিন ট্যুরটা জোশ ছিলো, বলো! […]

বিস্তারিত
3

হয়তো তোমারই জন্য -(শেষ পর্ব)

  কয়েকবার পরপর কলিংবেল বাজলো, প্রায় দেড়টা বাজে, এই অসময় কে আসবে, ভাবতে ভাবতে বিভোর দরজা খুললো, এবং খুলেই অবাক হয়ে গেল, মাইশা, এতদিন পরে!! মাইশা হাসতে হাসতে বললো, কি রে, খুব চমকে গেলি! কেমন আছিস? একটু ভারী, ম্যানলি হয়ে গেছিস দেখছি! এতগুলো প্রশ্ন একসাথে, কোনটা রেখে কোনটা উত্তর দেই, বিভোর পাল্টা প্রশ্ন করলো! —–কোথাও […]

বিস্তারিত
6

হয়তো তোমারই জন্য -পর্ব ৩

  আনিকার স্বপ্নের দিন গুলি শুরু হলো। ভালোবাসি না বলেও ভালোবাসা যায়, স্পর্শ না করে জুড়ে থাকা যায় সমস্ত অনুভূতি। সারাক্ষণ বিভোর হয়ে বিভোরকে ভাবে। তবে বিভোর এতোটা সময় পায়না৷ নিজের কাজ নিয়েই বেশ ব্যস্ত থাকে। কয়েকটা দিন কথা বলা হয়নি আনিকার সাথে, তবে কাজের মাঝেই ওর কথা মনে হয়। বিভোর নিজের মনে ভাবে, আমি […]

বিস্তারিত
3

হয়তো তোমারই জন্য – পর্ব ২

  আনিকার দিনগুলি পাল্টে গেলো, সারাদিন সব কাজের মধ্যেও কোথাও একটা বিভোর থেকে যায়। একটু অন্যমনস্ক হয়ে হয়ে থাকে। প্রায়ই গ্রীন থেকে টুকটাক অর্ডার করে ফেলে, অপেক্ষা করে, কিন্তু বিভোর আসে না। তিন নম্বর রোডের সামনে দিয়ে যাওয়ার সময় মনে হয়, বিভোরের সাথে দেখা হবে, কিন্তু দেখা হয়না কখনো। ক্লাশ শেষ হলে, বাসের জন্য অপেক্ষা […]

বিস্তারিত