3

চোখের আলোয়ে দেখেছিলেম -শেষ পর্ব

  মাঝে মাঝে দুয়েকটা দিন আসে মন খারাপের দিন। আজ সুধার মন খারাপ লাগছে, কোন কারণ নেই। কতক্ষণ ঘর গোছালো, কলেজে যায়নি আজ। সাজতেও ইচ্ছে করছে না। দুটো বেকিং ছিলো, শেষ করে একবার ছাদের দিকে গেলো। কেউ নেই, ধ্রুব চাবি দিয়েছে, সুধা খুলে ছাদের কর্ণারে গিয়ে বসে রইলো অনেকক্ষণ। তিনটার দিকে ধ্রুব ছাদে উঠে দেখে […]

বিস্তারিত
2

চোখের আলোয় দেখেছিলেম- পর্ব ৫

  ধ্রুবর জন্মদিনে সুধা উইশও করলো না। ওর বন্ধুরা এলো, হইচই, চিৎকার, গান আড্ডা সবই হলো শুধু সুধাকে কোথাও দেখলো না ধ্রুব। রথি রান্না করে নিয়ে এসেছে ধ্রুবর জন্য, ধ্রুবর মন টানলো না। কয়েকবার দরজার দিকে তাকালো, বাইরে গিয়ে সুধার জানালা দিকে তাকালো, আজ তো বাসায়ই আছে, মদনাকে বলা আছে, বাসার বাইরে গেলেই ফোন করবে […]

বিস্তারিত

চোখের আলোয় দেখেছিলেম-পর্ব ৪

  সাধারণত প্রথমবার অপ্রত্যাশিত শারিরীক সম্পর্কের পরে মেয়েরা দুশ্চিন্তায় পড়ে কিন্তু ধ্রুবর ক্ষেত্রে উল্টো হলো। তার কেবলি চিন্তা হতে লাগলো সুধার জন্য। বারবার সুধাকে এক নজর দেখার জন্য মন উতলা হতে লাগলো। ওর সাথে কথা বলতে হবে তো, মেয়েটা কি করবে, কোন সমস্যা হয় যদি। ধ্রুব ঠিক করে ফেললো সুধা কখন কোথায় যায় এটা সে […]

বিস্তারিত
5

চোখের আলোয় দেখেছিলেম- পর্ব ৩

  দুদিন কেটে গেলো, সুধাকে দেখেনি ধ্রুব। ওর কি ক্লাশ বন্ধ নাকি বাড়িতে বসে আছে! সুধার জন্য অস্থিরতায় অন্যমনস্ক হয়ে যায় ধ্রুব। কোনকিছুতেই মন বসে না। তৃতীয় দিন সুধা কলেজে গেলো, ধ্রুব সেদিন ঘড়ি ধরে সুধার কলেজ ছুটির সময় সামনে দাঁড়ালো। কোনদিনও এভাবে দাঁড়ায়নি কারো জন্য। সুধা বের হতেই ওকে ডাকলো ধ্রুব, -সুধা, কিছু কথা […]

বিস্তারিত
2

চোখের আলোয় দেখেছিলেম- পর্ব ২

  ছাদের কার্ণিশে সুধা পা ঝুলিয়ে বসে ছিলো। এমনি সময়ে ছাদ তালা বন্ধ থাকে, চাবি থাকে ধ্রুবর কাছে, আজ ধ্রুবর মা কম্বল গুলো ছাদে মেলে দিবেন বলে ছাদ খোলা ছিলো। কিন্তু একটু বৃষ্টি হয়েছে। সুধাকে খবর দিয়েছে বুয়া, ছাদ খোলা আছে। সুধা আসবে কিনা ইতস্তত করছিলো, পরে বুয়া বলল, যান আফা, সমেস্যা হইবো না। ছাদে […]

বিস্তারিত
4

চোখের আলোয় দেখেছিলেম -পর্ব ১

  ট্রাকটা একদম রাস্তার মাঝখানে রেখেছে, ধ্রুব একটু সাইড করতে বল্ তো! দোতলায় ভাড়াটে এসেছে নাকি? -হুম, আজ ওঠার কথা, আঠাশ তারিখ তো আজকেই? ধ্রুব রথিকে পাল্টা জিজ্ঞেস করলো। প্রথম প্রশ্নকারী রথি, ধ্রুবর বন্ধু একই সাথে বাগদত্তা বলা চলে। দুজনের বন্ধুত্ব দেখে রথির বাসা থেকেই কথা বলেছিলো, ধ্রুবর সাথে রথির বিয়ের বিষয়ে, কিন্তু এখনো কিছু […]

বিস্তারিত
8

বৃষ্টি নামার আগে- শেষ পর্ব

  ইপ্তি হসপিটাল বিল্ডিং এ ঢুকে গেলো। ইপ্তির মাও পেছন পেছন ঢুকলেন। ইপ্তির পেছন পেছন সিঁড়ি ভেঙে উঠে গেলেন। এই সিঁড়িটা সাইডে, ভেতরের লোকজন ছাড়া পেশেন্টরা তেমন ব্যবহার করে না, এই সিঁড়ি দিয়ে উঠলে শাফির কেবিন কাছে হয়। নিরিবিলি থাকায় ইপ্তির মাকে কেউ আটকালো না। ইপ্তি কেবিনে ঢুকে গেলো, ইপ্তির মা দরজার আড়ালে থাকলেন, ভেতরে […]

বিস্তারিত
2

বৃষ্টি নামার আগে- পর্ব ১০

  শাফিকে কেবিনে শিফট করে দিয়েছে রাতেই। দু তিনদিন থাকতে হবে, কাছাকাছি বাসা হলে চলে যেতে পারতো, কিন্তু যেহেতু অনেক দূরে থাকে, তাই দুটো দিন হসপিটালে থাকাই ভালো মনে করলেন ডাক্তার। ইপ্তি সারাকে আর ফোন করেনি, ওই বিল্ডিং এর নিচের রিসিপশন থেকে জেনে নিয়েছে কেবিন নম্বর ৪০৫। একদম শেষ কেবিনটা, চারতলার একদম কর্ণারে। রাতে ইপ্তি […]

বিস্তারিত
4

বৃষ্টি নামার আগে- পর্ব ৯

শাফির চোট ছিলো বেশ ভালো রকমের। স্থানীয় ডাক্তার বললেন, সম্ভবত ছোট একটা অপারেশন লাগবে, এখানে না করিয়ে খুলনা বা বরিশাল অথবা ঢাকায় করানো ভালো। সারা যেহেতু বেশ ভালো একটা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে জড়িত আছে তাই খুলনা বা বরিশালের কোন প্রশ্নই আসে না। শাফি একটু দুর্বল হয়ে গেছে৷ এভাবে রাত বিরেতে ও অনেক চলাফেরা করেছে কিন্তু […]

বিস্তারিত

বৃষ্টি নামার আগে- পর্ব ৮

  শাফি চলে যাওয়ার পরে পথে দুবার ফোন করেছিলো ইপ্তিকে। কিন্তু তারপর থেকে সুইচড অফ বলছে। ইপ্তি অনেকবার চেষ্টা করলো কিন্তু রিচ করতে পারলো না। ইপ্তি একবার ভেবে নিলো হয়তো শাফির ফোনের চার্য শেষ হয়ে গেছে। কিন্তু পরদিন সকাল, সকাল গড়িয়ে দুপুর, বিকেল, শাফির ফোন অন হলেও পিক করলো না। বিকেলের দিকে শাফি ফোন করলো। […]

বিস্তারিত
1 2 3 4